1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : annagilliam :
  3. [email protected] : pimgiuseppe :
  4. [email protected] : test2246679 :
  5. [email protected] : test25777112 :
  6. [email protected] : test29576900 :
  7. [email protected] : test34936489 :
  8. [email protected] : test44134420 :
  9. [email protected] : test46751630 :
  10. [email protected] : test8373381 :
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৭:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দারিদ্র্য বিমোচনে দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর কাজ করা উচিত : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফুলেল শ্রদ্ধায় সিক্ত হলেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও নাট্যজন মাহমুদ সাজ্জাদ সারাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলা, নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদে এবং দ্রুত বিচার দাবিতে মহিলা পরিষদের মানববন্ধন  আবারো নৌ-পুলিশ ও ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে নিখোঁজ বাল্কহেড উদ্ধার  এনায়েতনগর ৬ নং ওয়ার্ড মেম্বার প্রার্থী সমাজ সেবক রফিকুল ইসলাম রফিক এর উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ের ৮টি ইউপি’র নির্বাচন: আওয়ামী লীগের নতুন ৪ ও ৪টিতে পুরাতন মুখ আইভীর মিথ্যাচারে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের ক্ষোভ আইভীর সম্প্রীতির কর্মসূচী সুপার ফ্লপ,আসেনি মূলধারার কেউই,হারিয়েছেন গণমানুষের সমর্থন! দলীয় নেতারা চুনোপুটি, রাঘব বোয়াল আইভী,উচ্চাবিলাসী আর বেঁফাস কথাবার্তা ! বাড়ির সীমানা বিরোধ: রূপগঞ্জে ব্যাংকারের বাড়িতে হামলা-ভাংচুর

কবরীর পাঁচ ছেলে কে কোথায়?

টেলিগ্রাফ ডেস্ক রিপোর্ট:
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩১৭ বার

টানা ১২ দিন করোনাভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করে শুক্রবার দিবাগত রাত (১৭ এপ্রিল) ১২টা ২০ মিনিটে না ফেরার দেশে চলে গেছেন ঢাকাই সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী (৭০)। মৃত্যুকালে পাঁচ ছেলে রেখে গেছেন তিনি।

 

কবরীর সেই পাঁচ ছেলে হলেন,অঞ্জন চৌধুরী, রিজওয়ান চৌধুরী, শাকের ওসমান চিশতি, চিশতী ও শান ওসমান চিশতি ।

 

অঞ্জন চৌধুরী ও  রিজওয়ান চৌধুরী হলেন চিত্ত চৌধুরীর ছেলে ।

 

কবরীর ব্যক্তিগত সহকারী নূর উদ্দিন জানান, অভিনেত্রীর বড় ছেলে অঞ্জন চৌধুরী অনেক বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী। সেখানে তিনি চাকরি করেন। যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে শুরুতে লেখাপড়া করেন অঞ্জন। তারপর এক সময় চাকরি নেন। পরে সেখানেই স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন।

 

প্রয়াত ‘মিষ্টি মেয়ে’ খ্যাত নায়িকার দ্বিতীয় ছেলে রিজওয়ান চৌধুরীও যুক্তরাষ্ট্র থেকে লেখাপড়া করেছেন। সেখানে এক সময় চাকরিও করেছেন। তবে পরে সেখান থেকে চলে যান সংযুক্ত আরব আমিরাতে। বর্তমানে দেশটির দুবাইয়ে চাকরি করছেন তিনি।

 

কবরীর তৃতীয় ছেলে শাকের ওসমান চিশতী। তিনি সিনেমা নিয়ে পড়াশোনা করেছেন ইংল্যান্ডের বিখ্যাত অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। পড়াশোনা শেষ করে তিনি ইংল্যান্ডেই বসবাস শুরু করেন। শাকের সেখানে চাকরি করছেন। গত কিছুদিন ধরে অসুস্থ মায়ের পাশে ছায়ার মতো ছিলেন শাকের। সর্বোচ্চ সেবা আর ভালোবাসা দিয়েও মাকে বাঁচাতে না পারার আক্ষেপ হয়তো দীর্ঘদিন পোড়াবে তাকে।

 

নূর উদ্দিন জানান, অভিনেত্রীর চতুর্থ ছেলে চিশতী কানাডা প্রবাসী। তিনি সেখানে ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়তে যান। পড়াশোনা শেষ করে পরবর্তীতে সেখানে স্থায়ী হয়ে যান।

 

কবরীর সবচেয়ে ছোট শান ওসমান চিশতী। তার বয়স প্রায় ৩০,তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধী।

 

উল্লেখ্য, ১৯৫০ সালের ১৯ জুলাই চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে জন্মগ্রহণ করেন কবরী। তার আসল নাম ছিল মিনা পাল। বাবা শ্রীকৃষ্ণদাস পাল এবং মা লাবণ্য প্রভা পাল। ১৯৬৩ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে নৃত্যশিল্পী হিসেবে মঞ্চে উঠেছিলেন তিনি। তারপর টেলিভিশন ও সবশেষে সিনেমায়। কবরী বিয়ে করেন চিত্ত চৌধুরীকে। সম্পর্ক বিচ্ছেদের পর ১৯৭৮ সালে তিনি বিয়ে করেন সফিউদ্দীন সরোয়ারকে। ২০০৮ সালে তাদেরও বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Telegraphnews24.com
Theme Dwonload From telegraphnews24.Com