1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : test2246679 :
  3. [email protected] : test25777112 :
  4. [email protected] : test29576900 :
  5. [email protected] : test34936489 :
  6. [email protected] : test44134420 :
  7. [email protected] : test46751630 :
  8. [email protected] : test8373381 :
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আইভী ব্যর্থ,নগরবাসীর কাছে প্রমানিত: এড. শাখাওয়াত হোসেন খান কবি কন্ঠে কবিতা পাঠ ও রুপান্তর রৌদ্রছায়া সাহিত্য সম্মাননা ২০২১ অনুষ্ঠিত আলীরটেকে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি চেয়ারম্যান প্রার্থী সায়েম আহম্মেদ বাহাউদ্দিন নাসিমের মা’র রুহের মাগফেরাত কামনায় কাউন্সিলর দুলাল প্রধানের মিলাদ ও দোয়া আমি এমন কাজ করে যেতে চাই যেনো মৃত্যুর পরেও লোকে বলে একজন ভালো মানুষ ছিলেন : ২২নং ওয়ার্ডে তরুণ কাউন্সিলর প্রার্থী খান মাসুদ দুর্নীতিমুক্ত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় নৈতিকতাসম্পন্ন ছাত্র সমাজের বিকল্প নেই : ফতুল্লা ইশা ছাত্র আন্দোলন র‌্যাব-১১ এর পৃথক অভিযানে রূপগঞ্জ হতে ১ মাদক ব্যবসায়ী এবং ডাকাতি মামলার ১ পলাতক আসামী গ্রেফতার সিদ্ধিরগঞ্জের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কর্মী সভা অনুষ্ঠিত নাসিক ২২নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে খান মাসুদকে কোর্টপাড়া পঞ্চায়েত কমিটির পূর্ণ সমর্থন এবার বঙ্গবন্ধুর ভুল শুধরানোর ভূমিকায় মেয়র আইভী!

দেশের যেকোনো প্রান্তে ব্যবসা করা হকারদের সংবিধানিক অধিকার : হাফিজুল ইসলাম

টেলিগ্রাফ রিপোর্ট:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১১ মার্চ, ২০২১
  • ৫০ বার

বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টি (সিপিবি) জেলার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম বলেছেন, হকাররা এই দেশেরই নাগরিক। দেশের যেকোনো অঞ্চলে হকাররা অবস্থান নিবে,  যে কোনো প্রান্তে উপার্জন করবে। এটা তাদের সংবিধানিক অধিকার। তাদেরকে এই অধিকার থেকে বঞ্চিত করা যাবে না।  অধিকার বঞ্চিত করা হলে আমরা আমাদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন চালিয়ে যাবো। আমাদের দাবি আদায়ের আন্দোলনে যাদের আটক করা হয়েছে, তাদের আমরা মুক্ত করবো। মামলা করা হয়েছে, আমরা আদালতে যাবো এবং আইনী লড়াই করে তাদেরকে মুক্ত করে আনবো।

 

বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) বিকেলে হকার নেতা আসাদের মুক্তি দাবি ও ‘পূনর্বাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ চলবে না’ এই দাবিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা হকার্স সংগ্রাম পরিষদ চাষাড়া শহীদ মিনারে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

হাফিজুল ইসলাম আরও বলেন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী আপনাদের প্রতিপক্ষ না। তাদের যদি আপনাদের দমন করার ইচ্ছা থাকতো, আপনারা এখানে সমাবেশ করতে পারতেন না। আমাদের এই আন্দোলন দীর্ঘদিনের, ২০১৬-১৭ থেকে না। স্বৈরাচারী এরশাদ যখন ক্ষমতায় আসেন, তিনি বাংলাদেশ সুন্দর করার নামে দেশের সব রাস্তা থেকে হকার উচ্ছেদ করেন, বস্তি উচ্ছেদ করেন। স্বৈরশাসকরা মুষ্টিমেয় কিছু মানুষকে সুবিধা দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষকে তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করে। আমরা চাই, আমাদের স্বাধীন বাংলাদেশ সুন্দর বাংলাদেশ হোক। কিন্তু, দুই একজন মানুষের জন্য, ১ ভাগ মানুষের জন্য সুন্দর বাংলাদেশ গড়বেন, ৯৯ ভাগ মানুষের জন্য অসুন্দর বাংলাদেশ বানাবেন, এই সুন্দর বাংলাদেশ আমরা চাই না। সারা দেশবাসীকে অবহিত করা হয়েছে, হকারদের পূনর্বাসন করা হয়েছে, তাদের জন্য মার্কেট করা হয়েছে। ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় যে হকার্স মার্কেট বানানো হয়, সেখানে হকারদের ব্যবসা করার সুযোগ নাই। একজন মানুষ যখন মৃত্যুবরণ করে, তাকেও সাড়ে সাত ফুট জায়গা দেয়া হয়। কিন্তু হকারদের ব্যবসা করার জন্য মাত্র সাড়ে ৩ ফুট জায়গা দেয়া হয়েছে।’আমাদের ন্যায্য দাবি, হকারদের পুনর্বাসন করতে হবে। এই ফুটপাতে বসে ব্যবসা করার এত খায়েশ গরীব মানুষের নাই। যদি পুনর্বাসন করা হয়, গরিব মানুষ কষ্ট করে ফুটপাতে আসবে না। এই হকাররা কেউ সুদের টাকায়, কেউ মায়েদের স্বর্ণ-গয়না বিক্রি করে ব্যাবসার টাকা যোগায়। এদের টার্গেট সরকার পতন বা পরিবর্তন না, তাদের টার্গেট রুজি রুটির ব্যবস্থা করা।’

 

সঞ্চালনায় ছিলেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন।

 

ইকবাল হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, মানুষের অধিকার হরণ করার অধিকার কারো নেই,মানুষের কথা বলার অধিকার যখন হরণ করা হয়, আমরা নিয়মতান্ত্রিকভাবেই সেই অন্যায়ের প্রতিবাদ জানাই। আমরা বলতে চাই, হকাররাও এই দেশের মানুষ। তাদেরও অধিকার আছে। তাদেরও দাবি দাওয়া আছে। তাদেরও ন্যায়সঙ্গত কথা বলার অধিকার গণতন্ত্রে আছে। স্বাধীনতার মাসে বলতে চাই, হকারদের এই দেশে থাকার অধিকার আছে। মামলা দিয়ে হামলা করে, পুলিশ দিয়ে এলাকার মধ্যে যুদ্ধক্ষেত্র তৈরি করে সমস্যার সমাধানের পথ হতে পারে বলে আমরা মনে করি না।

 

সমাবেশের শুরুর দিকে শহীদ মিনারের মূল ফটকে পুলিশ সদস্যরা গার্ডে দাঁড়িয়েছিলেন, যে হকাররা প্রবেশ করছিলেন তাদের নাম পরিচয় লেখা হয়। ফলে অনেক  সাধারন হকার শহীদ মিনারে ঢোকার সাহস পাননি। এরপর হাফিজুল ইসলাম নিজের পরিচয় দিয়ে ঢোকার পরে পুলিশের সাথে কথা বলে সবাইকে ঢোকার অনুমতি নেন।

 

পুলিশের পর্যবেক্ষণের দায়িত্বে ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) জাহেদ পারভেজ চৌধুরী, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ জামান, ডিবির অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন, তদন্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান।

 

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার আইন বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম বাবুল, সদস্য দিলীপ কুমার দাস, সাধারন হকার মোঃ অনিক ও নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়া ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Telegraphnews24.com
Theme Dwonload From telegraphnews24.Com