1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : annagilliam :
  3. [email protected] : kaseyhartwell1 :
  4. [email protected] : pimgiuseppe :
  5. [email protected] : test114192 :
  6. [email protected] : test15530113 :
  7. [email protected] : test18644919 :
  8. [email protected] : test2246679 :
  9. [email protected] : test25777112 :
  10. [email protected] : test27772429 :
  11. [email protected] : test28072043 :
  12. [email protected] : test29576900 :
  13. [email protected] : test34936489 :
  14. [email protected] : test35340289 :
  15. [email protected] : test37141039 :
  16. [email protected] : test3734843 :
  17. [email protected] : test41175725 :
  18. [email protected] : test43179736 :
  19. [email protected] : test44134420 :
  20. [email protected] : test45570592 :
  21. [email protected] : test46751630 :
  22. [email protected] : test8373381 :
  23. [email protected] : wpuser_lfudhofinnhh :
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১১:২৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নাসিকের জন্মের পূর্ব থেকেই ২৩ নং ওয়ার্ডে জনপ্রিয়তার শীর্ষে কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন আহম্মেদ দুলাল প্রধান কাউন্সিলর দুলাল প্রধানের জন্য ১২ টি মসজিদে শুকরানা দোয়া অনুষ্ঠিত তুমি লাশ ফালাবে আর আমি কি আঙ্গল চুসব ? : দেলোয়ার প্রধানকে কাজিম উদ্দিন প্রধান কাজিম উদ্দিন প্রধানের সাথে ২০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী জাহাঙ্গীরে সৌজন্য স্বাক্ষাত সোনারগাঁয়ে ৮টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আজ শ্রমিক নেতা পলাশকে অভিনন্দন জানালেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য মোহাম্মদ জমশের আলী  শ্রমিক নেতা পলাশ চতুর্থ বারের মত আলীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের অভিনন্দন নাসিক মেয়র গণতান্ত্রিক শিষ্টাচারের প্রতি বৃদ্ধাংগুলি প্রদর্শন করছেন : আবু হাসান টিপু কোন্ডা ইউপি নির্বাচনে একটি মহল ভোট কারচুপির মাধ্যমে আমাকে পরাজিত করার গভীর ষড়যন্ত্র মেতে উঠেছে : মেম্বার পদপ্রার্থী ময়ফল বেগম  দক্ষিন কেরানীগঞ্জ কোন্ডা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ৪ নং ওয়ার্ড মেম্বার পদপ্রার্থী মোঃ আজহার মাসুমের বিশাল নির্বাচনী শোডাউন 

বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্লেষণ ও দিকনির্দেশনা শীর্ষক আলোচনা সভা

প্রেস রিলিজ
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১
  • ৬০ বার

আজ সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্লেষণ ও দিকনির্দেশনা শীর্ষক আলোচনা সভা সংগঠনের পরিচালনা কমিটির সদস্যও মুক্তিযুদ্ধের কিংবদন্তী মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম এর সভাপতিত্বে ও পরিচালনা কমিটির সদস্য মতিউর রহমান লাল্টুর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী অনুষদের সাবেক ডীন অধ্যাপক আরম ফারুক, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক ড. প্রিয়ব্রত পাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোঃ ফিরোজ আহমেদ, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের সাবেক ডীন অধ্যাপক ড. শাহজাহান মন্ডল সহ বঙ্গবন্ধু পরিষদ পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ ও সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ। আলোচনায় অংশ নিয়ে ডা. কামরুল হাসান খান বলেন,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বাঙ্গালির ত্রানকর্তা হিসেবে এদেশে জন্ম নিয়ে ছিলেন। দীর্ঘ ২৪ বছর পাকিস্তানের শোষণ, বৈষম্য, দুঃশাসন ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু আন্দোলন সংগ্রাম করেছেন। তাঁর আন্দোলনের ফসল আজকের স্বাধীন বাংলাদেশ। একটি ভাষণের মাধ্যমে একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার কৃতিত্ব একমাত্র শেখ মুজিবই সফল হয়েছেন।

 

ড. প্রিয়ব্রত পাল বলেন, বঙ্গবন্ধু বিশ্বের নিপীড়িত মানুষের মুক্তির মহান নেতা ছিলেন। তিনি বলেছিলেন, আর দাবায়ে রাখতে পারবে না। সত্যিই আমরা আজ দুর্বার গতিতে সামনের দিকে এগিয়ে চলেছি। তলাবিহীন ঝুঁড়ির দেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা অর্জন করেছে। ড. লিয়াকত হোসেন মোড়ল, বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাষণ কালজয়ী ইতিসাস সৃষ্টি করেছে। বিশ্ব ইতিহাসের অমূল্য সম্পদ বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ। বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলার জন্য তাঁর ভাষণ স্বৈরাচারী শাসকরা বার বার নিষেধ করেছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্ঠরোধ আর করা যাবে না। অধ্যাপক আমখ ফারুক বলেন, বঙ্গবন্ধু ১০ লক্ষ মানুষের উপস্থিতিতে ৭ইমার্চ ঐতিহাসিক সোহরাওয়াদী উদ্যানে যে জ্ঞান গর্ভ ও তেজদীপ্ত, প্রেরনাদায়ক ভাষন দিয়েছিলেন, এটাই ছিল স্বাধীনতার মূলমন্ত্র। এই জন্য তিনি রাজনীতির কবি উপাধিতে ভূষিত হয়েছেন।

ডা. শেখ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, “ বিএনপি জামায়াত স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণকে বিতর্কিত করছে। বঙ্গবন্ধুই ৭ই মার্চ স্বাধীনতার ডাকদেন। স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন। আব্দুল মতিন ভূইয়া বলেন, “ বঙ্গবন্ধু ৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় এই ভাষণের মাধ্যমে তিনি একটি নিরস্ত্র জাতিকে সশস্ত্র জাতিতে রূপান্তর মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা জন্য প্রস্তুত করা ও কিভাবে যুদ্ধ করে বিজয় অর্জন করতে হবে তার সুস্পষ্ট দিক নির্দেশনা দিয়েছিলেন এই ভাষণে।

 

ড. শাহজাহান মন্ডল বলেন “ বঙ্গবন্ধু ৭ই মার্চের ভাষণে প্রথমে মুক্তি ও পরে স্বাধীনতার কথা বলেছেন। মুক্তি ব্যাপক অর্থে অর্থনৈতিক মুক্তির কথা বলেছেন। তিনি ভাবতেন, স্বাধীনতা অর্জিত হলেও যদি অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতা না আসে, তবে সেই স্বাধীনতা অর্থহীন হয়ে যাবে। তাই তিনি স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে অর্থনৈতিক মুক্তি জন্য গুরুত্বরোপ করেছিলেন।

 

অজিত কুমার সরকার বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষনার একমাত্র নেতাছিলেন। তার সাংবিধানিক, আইনসম্মত,বৈধ এবং আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে জনগনের নির্বাচিত নেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধু এই ক্ষমতা অর্জন করে ছিলেন ।

 

সভাপতির বক্তব্য মাহবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম বলেন, অনেকে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণকে স্বাধীনতার প্রকৃত প্রতিফলন দেখেন না, তারা জ্ঞান পাপী। বঙ্গবন্ধুই ১৯৭০ সালে জাতীয় নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন আর ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধু তাঁর ভাষণে সরাসরি স্বাধীনতার ডাকদেননি এমন প্রশ্নের উত্তর এই ভাবে ব্যাখ্যা করা যায বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালির জীবন রক্ষার স্বার্থে কৌশলগত কারনে তিনি সরাসরি স্বাধীনতার কথা না বলে প্রকারন্তরে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন। সেদিন তিনি পাকিস্তানী সামরিক বাহিনী যে আধুনিক বিমান ও ট্যাংক বহর নিয়ে জনসভা বেষ্টনী দিয়েছিল, তাতে বোধহয় বঙ্গবন্ধু বুঝতে পেরে ছিলেন, সরাসরি স্বাধীনতার ঘোষনা দিলে তিনি ও বাঙ্গালি জাতি নিশ্চিত ভাবে মহাবিপদে পড়বে। পরবর্তীতে ২৫শে মার্চের কালরাতে নিরীহ বাঙালিদের হত্যা করা হলে বঙ্গবন্ধু ২৬শে মার্চের প্রথম প্রহরে আনুষ্ঠানিক ভাবে গ্রেফতার হওয়ার আগে বাংলাদেশের স্বাধীনতার চূড়ান্ত ঘোষণা দেন। পরে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়।

 

আরও বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু পরিষদ পরিচালনা কমিটির সদস্য ডা. শেখ আব্দুল্লাহ আল মামুন, এড. দিদার আলী, আব্দুল মতিন ভূঁইয়া, খন্দকার নজরুল ইসলাম, প্রকৌশলী মাইনুর রহমান, আবুল হোসেন, ড. জাহাঙ্গীর আলম, ড. লিয়াকত হোসেন মোড়ল, মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, অজিত কুমার সরকার, জালাল উদ্দিন আহমেদ তুহিন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ নেতা মোঃ নাসির উদ্দিন ও ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য, ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, এইচ এম মেহেদী হাসান, কলাবাগান থানা বঙ্গবন্ধু পরিষদ, সভাপতি এস এম ওয়াহিদুজ্জামান (মিন্টু) বেসিক ব্যাংক, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, সভাপতি ড. শংকর তালুকদার সহ-বিভিন্ন ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মহানগর ও থানা কমিটির নেতৃবৃন্দ।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Telegraphnews24.com
Theme Dwonload From telegraphnews24.Com