1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : test2246679 :
  3. [email protected] : test25777112 :
  4. [email protected] : test29576900 :
  5. [email protected] : test34936489 :
  6. [email protected] : test44134420 :
  7. [email protected] : test46751630 :
  8. [email protected] : test8373381 :
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাউন্সিলর পদে খান মাসুদকে সমর্থন দিলেন বাবুপাড়া পঞ্চায়েত কমিটি নাসিক ২২নং ওয়ার্ড এর তরুণ কাউন্সিলর পদপ্রার্থী খান মাসুদকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ র‍্যালীবাসী শ্রমিকরা ভাল থাকলেই দেশ ভাল থাকবে : পলাশ খেলাধুলা যুব সমাজ রক্ষা করার মূল হাতিয়ার : কাউন্সিলর দুলাল প্রধান আল- আরাফাহ’ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড বন্দর থানা শাখার দুস্তদের মাঝে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ শ্রমিক নেতা পলাশের নির্দেশনায় নন্দলালপুরে ডাইং শ্রমিকদের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধিতে সভা করলেন পিয়াস আহম্মেদ সোহেল   “নারায়ণগঞ্জ টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন”এর আত্মপ্রকাশ,সভাপতি জুয়েল,সম্পাদক সৈকত আসছে বিরাট পরিবর্তন:নির্যাতিত-ত্যাগী হবেন প্রার্থী তারেক জিয়ার নির্দেশে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে চিরতরে শেষ করার চেষ্টা করা হয়েছিল : এড. শহীদ বাদল নাসিক ২৪ নং ওয়ার্ডে বিট পুলিশিং কমিটির মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

হুমায়ুন কবীর মৃধা’র ৫৯ তম জন্মদিন পালন

টেলিগ্রাফ রিপোর্ট:
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৫৬ বার

 

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবীর মৃধার ৫৯ তম জন্মদিন পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে নগরীর শায়েস্তা খাঁন রোডস্থ (সাবেক পুরাণ কোর্ট) মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্ড. খোকন সাহার ব্যক্তিগত অফিস প্রাঙ্গনে কেক কাটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় হুমায়ুন কবীর মৃধাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান ও কেক উপহার দেন এড.খোকন সাহা ।

এসময় অন্যান্যের নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি বিদ্যুৎ কুমার সাহা,আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন টুলু,মো: শহিদুল হাসান মৃধা, যুবলীগ নেতা মো: ফারুক প্রধানসহ বন্দরের ৯ টি ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কেক কাটার পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা বলেন, হঠাৎ শুনি হুমায়ুন কবীর মৃধার জন্মদিন, বললাম বন্দরে নয় শহরে পালন করবো আপনার জন্মদিন। ১১ আগস্ট আমার জন্মদিন, ৭৬ সালের পর আমি আমার জন্মদিন পালন করি নাই। ত্যাগি কর্মী হিসেবে তাকে শুভেচ্ছা জানালাম। আমি ৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কর্মী। শামীম ওসমানের নেতৃত্বে ৭৫ সালের পরে আমরা ছাত্রলীগকে সংগঠিত করেছিলাম, সেই সময়ে হুমায়ুন কবির মৃধা ছিলেন।

এড. খোকন সাহা বলেন, অনেকেই আপনারা উত্তপ্ত হয়ে আছেন আমার বিরুদ্ধে মামলা হলো কেন? আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, এই শহরে গত ৪৫ বছর যাবত রাজনীতি করি। ২৫ বছর যাবত মাননীয় নেত্রী আমাকে সাধারণ সম্পাদক পদে এনেছেন। নেতাকর্মীদের সুখে-দুঃখে আমি আছি। আমি এই ২৫ বছরে অনেক টাকা কামাতে পারতাম, সেইদিকে তাকাই নাই। মামলা হইছে মামলা হোক না, মামলার কাগজ আমি এখনও পাই নাই। আপনারা উত্তপ্ত হবেন না। গতকাল মিছিল-মিটিং করতে আমার কাছে প্রায় পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী এসেছে। আমি পরিষ্কার বলেছি, মামলা কেউ করতেই পারে। মামলার জবাব মামলা দিয়ে দিবো। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। আমি প্রমাণ করে দিবো আমার বক্তব্য সত্য না মিথ্যা।

তিনি আরো বলেন, আমি জিউস পুকুর নিয়ে সেদিন বলেছিলাম যে আমি, এইদেশে ২৫ বছর যাবত আমি সেক্রেটারি। এদেশের মুসলমান ভাইয়েরা আমাকে সেক্রেটারি করেছে, কোন হিন্দু করে নাই। হিন্দুদের সম্পত্তি রক্ষার জন্য আমি ২ ঘন্টা সময় দিয়েছিলাম। আমি বলেছিলাম, আমি মুসলমান ভাইদের ওয়াকফ্-মাদ্রাসার সম্পত্তি রক্ষা করার জন্য ২৪ ঘন্টা সময় দিবো। তাদের সম্পত্তি দখলমুক্ত করতে বিনা পয়সায় কাজ করবো।

তিনি বলেন, মামলা হইছে কাগজ পেলে মামলা আমি ফেইস করবো। আমি বলতে চাই একটা কথা, আওয়ামী লীগের ভোটে নির্বাচিত হবেন, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন করবেন না এটা আমি হতে দিবো না। হুমায়ুন ২০১৬ সালে অনেক পরিশ্রম করেছে সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে, হুমায়ুনকে চিনেন না। আমি স্বার্থের জন্য রাজনীতি করি না। আমি কোন কন্ট্রোকটার, সিন্ডিকেট পালি না। কোন কমিশন খাই না। আমি পরিষ্কারভাবে বলবো, আমার নেতা শামসুজ্জোহা সততার কিংবদন্তি। আমি তার কর্মী। আমার কর্মী হওয়ার যোগ্যতা ছিল না, চাচা বলে ডাকতাম। ৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু যখন বিধ্বস্ত বাংলাদেশ পুর্নগঠনে দায়িত্ব দিয়েছিলেন, আমার নেতা শামসুজ্জোহা সাহেব অনেক লাইসেন্স দিয়েছিলেন। কিন্তু নেতার মৃত্যুর আগে একটা বাড়ি রেখে গিয়েছিলেন, সেটাও নিলামে চলে গিয়েছিল। বাড়িটাও তার না, উনার পিতা খান সাহেব ওসমান আলী।

আমি সৎ মানুষ। আমি এখনও ঘুমালে চাঁদ দেখি। আমার টাকা নেই, পয়সা নেই। ৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের পর অনেক আওয়ামী লীগ নেতাদের জন্য বঙ্গবন্ধুর সরকারের বদনাম হয়েছিল। অনেকে লুট করেছে, নারাণয়গঞ্জে ব্যতিক্রম নয়। মুখ খোলার চেষ্টা করবেন না, বলে দিবো ১৯৭২ সালে কারা লুট করে পালিয়েছিলেন। কারা হিন্দুদের বাড়ি দখল করেছে, নাম মাত্র মূল্যে কিনে তাদের ভারতে পাঠিয়েছেন। অনেকে বলেছেন, খোকন সাহা মেয়র প্রার্থী, খোকনকে ঘায়েল করতে হবে। আমি মেয়র প্রার্থী না, চাওয়া পাওয়ার জন্য রাজনীতি করি না। অনেককে রাজনীতিতে এনেছি। আজকে যারা বড় বড় কথা বলেন, তাদের বলতে চাই ২০০১ সালের পর মনোনয়নের জন্য খোকন সাহা কি কাজ করে? সব বলবো। বেশি উত্তেজিত করার চেষ্টা করবেন না। আমি শান্তিপ্রিয় মানুষ, শান্তিতে থাকতে চাই। আমি নির্বাচন করার জন্য এখানে আসি নাই, আমি এসেছি সত্যের উন্মেষ ঘটানোর জন্য। আমি এসেছি সততার সাথে রাজনীতি করতে। আমি আগামীতে বলবো কারা সৎ রাজনীতি করেছেন। কাদের ছত্রছায়ায় নারায়ণগঞ্জে লুট হয়েছিল, স্বাক্ষ্য প্রমাণ নিয়ে সেটা বলবো।

মারবেন? মেরে ফেলেন, কোন ভয় নেই। বস্তুনিষ্ঠভাবে রাজনীতি করি। হিরা মহল থেকে আমার রাজনীতি শুরু, সেখানকার ইট খুলতে চান? হিরা মহলের রাজনীতি করতে গিয়ে মৃত্যু হলেও আমার আপত্তি নেই। বেশি খোঁচাবেন না, চুলকাবেন না।

মহানগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবীর মৃধা বলেন, ৭৫ সালের পর আমরা যারা আওয়ামী লীগের রাজনীতি সক্রিয় হয়ে ছাত্রলীগে অংশগ্রহণ করি, যারা শামীম ওসমানের নেতৃত্বে রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করেছি, ২৫ বছর যাবত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে খোকন সাহা। যখনই আমরা মামলার শিকার হয়েছি তখনই আমাদের সাহায্য করেছেন খোকন সাহা। আমার মতো ছোট নেতাকে মূল্যায়ন করে, এটা আমার জন্য সর্বোচ্চ পাওয়া।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Telegraphnews24.com
Theme Dwonload From telegraphnews24.Com