1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : test2246679 :
  3. [email protected] : test25777112 :
  4. [email protected] : test29576900 :
  5. [email protected] : test34936489 :
  6. [email protected] : test44134420 :
  7. [email protected] : test46751630 :
  8. [email protected] : test8373381 :
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কাউন্সিলর পদে খান মাসুদকে সমর্থন দিলেন বাবুপাড়া পঞ্চায়েত কমিটি নাসিক ২২নং ওয়ার্ড এর তরুণ কাউন্সিলর পদপ্রার্থী খান মাসুদকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ র‍্যালীবাসী শ্রমিকরা ভাল থাকলেই দেশ ভাল থাকবে : পলাশ খেলাধুলা যুব সমাজ রক্ষা করার মূল হাতিয়ার : কাউন্সিলর দুলাল প্রধান আল- আরাফাহ’ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড বন্দর থানা শাখার দুস্তদের মাঝে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ শ্রমিক নেতা পলাশের নির্দেশনায় নন্দলালপুরে ডাইং শ্রমিকদের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধিতে সভা করলেন পিয়াস আহম্মেদ সোহেল   “নারায়ণগঞ্জ টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন”এর আত্মপ্রকাশ,সভাপতি জুয়েল,সম্পাদক সৈকত আসছে বিরাট পরিবর্তন:নির্যাতিত-ত্যাগী হবেন প্রার্থী তারেক জিয়ার নির্দেশে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে চিরতরে শেষ করার চেষ্টা করা হয়েছিল : এড. শহীদ বাদল নাসিক ২৪ নং ওয়ার্ডে বিট পুলিশিং কমিটির মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সবোর্চ্চ বাজেটের রাস্তা উদ্বোধন

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৭০ বার

 

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেছেন, জনপ্রতিনিধিরা অনেক কিছু পারে যদি তাদের ইচ্ছা থাকে। আগে জেলা পরিষদে ৫/৬ লক্ষ টাকা বরাদ্দ ছিল আজ আমি জনপ্রতিনিধি হবার পর এখানে ১ কোটি ৮ হাজার টাকা ব্যয়ে রাস্তা নির্মান হচ্ছে। শুধু তাই নয় আমি আড়াইহাজার উপজেলায় একটি বৃদ্ধাশ্রম করার জন্য ১ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছি। আজকে আড়াইহাজারে একটি কেন্দ্রীয় পাঠাগার ও একটি শহীদ মিনার নির্মিত হয়েছে লক্ষ লক্ষ কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে। এসব সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার বাংলাদেশে শেখ হাসিনার কর্মীদের মাধ্যমে কারণ নেত্রীর নির্দেশ মানুষের পাশে থাকো মানুষের জন্য কাজ করো।

মঙ্গলবার ১৫ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় জালকুড়ি নাছির নগর এলাকায় নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলাধীন ৩নং ও ৪নং ভূইঘর পূর্ব দেলপাড়া আলহাজ্ব নাসির উদ্দিন জামে মসজিদ সড়ক উদ্বোধন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। এই সড়কটি প্রায় ১ কোটি ৮ হাজার ব্যয়ে করা হয়েছে, যা জেলা পরিষদের ইতিহাসের সবোর্চ্চ বাজেটের প্রকল্প।

আলহাজ্ব নাসির উদ্দিন জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, বিশেষ অতিথি কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল আলম সেন্টু, জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ মোস্তফা হোসেন, কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলম চাঁন, সাফায়েত হোসেন শুভ, কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

‘একসময় পদ্মা সেতু আমাদের স্বপ্ন ছিল, যা কোনদিন কেউ চিন্তাই করতে পারেনি পদ্মায় সেতু হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অর্থ বরাদ্দ না হবার পরেও এখানে দূর্নীতির গন্ধ পাবার কথা বলে অর্থ বরাদ্দ বন্ধ করা হয়েছিল তবে জাতির জনকের কন্যা বলেছিলেন পদ্মা সেতু হবে। অনেকেই বলেছিলেন, পদ্মা সেতু হতে পারেনা, হতে পারেনা। আজকে সেই সেতু দৃশ্যমান। ইনশাআল্লাহ আগামী ১ বছরে এ সেতুতে যানবাহন চলবে।’

আনোয়ার হোসেন বলেন, তিনি আরো বলেন, আমি যখন ছোট নারায়ণগঞ্জ তোলারাম কলেজের সাধারণ সম্পাদক তখন বঙ্গবন্ধুর কাছে গিয়েছিলাম। তিনি বলেছিলেন, রাজনীতি মানুষের কল্যানের জন্য করে আর ছাত্র জীবনে লেখাপড়া করো। লেখাপড়া মানুষের জ্ঞান অর্জনের জন্য। জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে রাজনীতিতে প্রবেশ করো এবং মানুষের কল্যানে নিজেকে নিয়োজিত করো। আমার সেই কথা এখনো মনে আছে। আমাকে যখন শেখ হাসিনা মনোনয়ন দিলেন, আমি শপথ নিতে গেলাম তখন তিনিও আমাকে একই কথা বললেন। আজকে আমি মানুষের কল্যানে কাজ করছি, কারণ মানুষকে খুশি করার মাধ্যমে আল্লাহকে খুশি করা যায়। আর আল্লাহকে যদি খুশি করা যায় তাহলে এই জীবনের পরের জীবনেও শান্তি পাওয়া যায়।

‘আমি যখন নারায়ণগঞ্জ হাই স্কুলে লেখাপড়া করেছি টানা ৫ বছর আমি কোরআন তেলাওয়াতে প্রথম হয়েছি। কারণ আমি আল্লাহকে বিশ্বাস করি, রসূলকে বিশ্বাস করি।’

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের সময়ে সৃতিচারণ করে আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি তো শহরের লোক, আমি চেয়েছিলাম নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র হবার জন্য, আমি চাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করেছি। আমি মেয়র নির্বাচনের সময় অনেক চেষ্টা করেছিলাম, দলও আমাকে সমর্থন করেছিল, সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল আমাকে মেয়র বানানোর জন্য কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত চৌকশ বুদ্ধি রাখেন। তিনি মনে করেছেন, আনোয়ার হোসেন একজন প্রবীন লোক তাকে শহরের মধ্যে সীমাবদ্ধ করে না রেখে সারা নারায়ণগঞ্জের দায়িত্ব তার উপর অর্পিত করলে সে আরো ভালো কাজ করতে পারবে। আর সেখানেই তিনি আমাকে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র লোক হিসেবে ৫ টি উপজেলার দায়িত্ব দিয়েছেন। আমি আর তাই আমি ৫টি উপজেলার সমস্ত যায়গায় উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছি কারণ জননেত্রী শেখ হাসিনা চেয়েছেন উন্নয়ন ছাড়া কোন কিছু সম্ভব নয়।

‘আগের জেলা পরিষদ আর বর্তমান জেলা পরিষদ অনেক পার্থক্য। আগে মানুষ জেলা পরিষদই চিনতোনা। কেউ সেখানে যেতোনা, সেখানে কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ হতোনা। মানুষের সততা ত্যাগ কর্মদক্ষতা থাকলে কোন উন্নয়ন বসে থাকেনা আজকের জেলা পরিষদ তার প্রমান।’

উন্নয়ন কাজের সম্পর্কে আনোয়ার হোসেন বলেন, যারা আমার কাছে এই রাস্তার জন্য এসছিলেন, আমি যখন মনে করেছিলাম এখানে একটি মসজিদ এখানে তাদের পানি ভেঙ্গে আসতে হয় আর তাই আমি নিজেই এখানে এসেছিলাম। আমি এলজিইডি সহ বিভিন্ন যায়গায় তদবির করে আসতে হয়েছে পরে এই রাস্তার কাজ করেছি। আমি আপনাদের কাছে শুকরিয়া আদায় করছি আপনার দোয়ায় এই কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আর তাই এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জানাই।

তিনি বলেন, এখানকার জনপ্রতিনিধি একেএম শামীম ওসমান আমার অত্যন্ত স্নেহধন্য আমার শিষ্য তাকে আমি রাজনৈতিক হাতেখড়ি দিয়েছলাম। এক সময় তোলারাম কলেজ ছাত্র সংসদে সে যখন রাজনীতি করতো তখন তার বাবার কাছে আমি আবদার করেছিলাম জোহা ভাই আমি শামীম ওসমানকে তোলারাম কলেজের ভিপি বানাতে চাই। তিনি তখন বলেছিলেন, আনোয়ার আমার পুরো পরিবারটা রাজনীতির সাথে যুক্ত তুমি তাকে রাজনীতিতে এনোনা কারণ আমি তাকে ব্যারিস্টার বানাতে চাই।

তিনি আরো বলেন, সেদিন তৈমুর আলম খন্দকার তার রূপগঞ্জের একটি মসজিদ নির্মানের জন্য আমার কাছে প্রার্থনা করেছেন। আমি তাড়াতাড়ি ইঞ্জিনিয়ার পাঠিয়ে সেখানে ব্যবস্থা নিয়েছি। উন্নয়ন শেখ হাসিনা আমাকে শিখিয়েছে, বলেছে উন্নয়ন যেন বাধাগ্রস্থ না হয় এবং উন্নয়নের ক্ষেত্রে কোন দলমত নেই।

 

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Telegraphnews24.com
Theme Dwonload From telegraphnews24.Com