1. [email protected] : admi2017 :
  2. [email protected] : test2246679 :
  3. [email protected] : test25777112 :
  4. [email protected] : test29576900 :
  5. [email protected] : test34936489 :
  6. [email protected] : test44134420 :
  7. [email protected] : test46751630 :
  8. [email protected] : test8373381 :
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
“নারায়ণগঞ্জ টেলিভিশন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন”এর আত্মপ্রকাশ,সভাপতি জুয়েল,সম্পাদক সৈকত আসছে বিরাট পরিবর্তন:নির্যাতিত-ত্যাগী হবেন প্রার্থী তারেক জিয়ার নির্দেশে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে চিরতরে শেষ করার চেষ্টা করা হয়েছিল : এড. শহীদ বাদল নাসিক ২৪ নং ওয়ার্ডে বিট পুলিশিং কমিটির মতবিনিময় অনুষ্ঠিত নন-বন্ডেড কারখানার ব্যাক টু ব্যাক এলসি খোলার সুযোগ থাকছে,স্থগিত হচ্ছে এনবিআর এর চিঠি নাসিক ৫নং ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত সূতা আমদানীর অনুমোদন ও নন বন্ডেড ব্যাক টু ক্যাক এলসি সমস্যা সমাধানে বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ে সভা না‌সিক ১৬নং ওয়া‌র্ড আ.লী‌গের কর্মীসভায় বক্তারা : শামীম ওসমা‌নের নেতৃ‌ত্বে না’গ‌ঞ্জ আ.লীগ ঐক‌্যবদ্ধ ছি‌লো এবং থাক‌বে প্রতিদিন এক জামা-কাপড় ভালো লাগে না : ভিপি বাদল সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা এর বিবৃতি: “জাতীয়পার্টিতে কোনো বিশৃঙ্খলাকারীদের স্থান হবেনা”

দীর্ঘ ৪ মাস পর হত্যাকান্ডের মূল ঘটনা উদঘাটন করলো নারায়ণগঞ্জ পিবিআই

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৮৬ বার

আগে থেকেই সর্ম্পক ছিল প্রেমের, সেই প্রেমিকাকে ডেকে এনে শারীরিক সম্পর্কের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে প্রেমিক। এরপর পাশের নির্মাণাধীন ঘরের ভিটি খুড়ে লাশ নিয়ে মাটিচাপা দেওয়া হয়।

সিলেটের জৈন্তাপুর ভারতীয় সীমান্তবর্তী পাহারী এলাকা থেকে আড়াইহাজারের সেই খুনি প্রেমিক ইউনুছ আলীকে গ্রেফতারের পর এ তথ্য পেয়েছে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।
আড়াইহাজার থানার মানিকপুরে অবস্থিত মামা ইলিয়াস মোল্লার বাড়িতে থাকতেন ফাতেমা আক্তার। তার ঠিক পাশেই বাড়িতে ছিল আসামী ইউনুছ আলী। দীর্ঘ ৯ বছর মালয়েশিয়ায় প্রবাস জীবন কাটিয়ে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দেশে ফিরে আসে সে। এ সময় ফাতেমার নানী বিভিন্ন অজুহাতেই ইউনুছকে বাড়িতে ডেকে আনতেন। এক পর্যায়ে ফাতেমার সাথে ইউনুছ আলীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

শনিবার দুপুরে এক জনাকির্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে পিবিআইয়ের নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মো. মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, ইউনুছ ও ফাতেমার প্রেমের সর্ম্পকটি দুই বাড়িতেই জেনে যায়। এরই মধ্যে ইউনুস বাড়ি পরিবর্তন করে বিশনন্দী ভেংলায় নতুন বাড়িতে চলে যায়। এরপর থেকেই ইউনুছকে বিযের জন্য বাড়ি থেকে পাত্রী খোঁজা শুরু করে দেয়। কিন্তু গর্ভবতী হওয়ার আশংকা এবং ইউনুছের জন্য কনে দেখার বিষয় জানতে পেরে ফাতেমা ইউনুছকে বিয়ে করার জন্য ইউনুসকে চাপ দেয়। কিন্তু ইউনুছ রাজি ছিল না। চলতি বছরের ১০ আগষ্ট বিকালে ইউনুছ মোবাইল ফোনে ফাতেমাকে ডেকে নেন। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে শেষে ইউনুছদের নতুন বাড়ির পিছনে গাছ গাছালী বেস্টিত জায়গায় ফাতেমাকে রেখে বাড়ি যায়। রাত ২টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে ফাতেমার কাছে গিয়ে শারীরিক মেলামেশা করে এবং একপর্যায়ে কৌশলে ভিকটিমের পিছন দিক থেকে গলাচেপে ধরে এবং শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এরপর গাছ গাছালী বেস্টিত জায়গা থেকে ঘটনাস্থল ডালিমের নির্মানাধীন ঘরের বালু ভর্তি ভিটিতে এনে কোদাল দিয়ে গর্ত করে তার মধ্যে ফাতেমার লাশ পুতে দেয়। এর পরের দিন নির্মানাধীন ঘরের মালিক ডালিম মা শরিফাকে জিজ্ঞাসা করেন, কবে ভিটি পাকা করবে। যদি টাকা লাগে আমার কাছ থেকে নিবেন।
এরপর গত ১৫ আগষ্ট ডালিম ঘরের কাজ করার সময় ভিটি হতে দূর্গন্ধ পায় এবং কোদাল দিয়ে বালু সরায়ে ভিকটিমের অর্ধপচা লাশ পেয়ে এলাকার লাকজনদের খবর দিলে স্থানীয় লোকজন পুলিশের নিকট খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশ মর্গে প্রেরণ করে এবং অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা রেকর্ড করে তদন্ত শুরু করে।
পিবিআই উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে গত ৮ অক্টোবর সিলেটের জৈন্তাপুর থানার বাংলাদেশ ভারতের সীমান্তবর্তী পাহারী এলাকায় এক ঘন্টা ব্যাপী এক অভিযান পরিচালনা করে আসামী ইউনুছ আলীকে গ্রেফতার করে। এরপর আসামীকে নিয়ে ১০ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ আড়াইহাজারে অভিযান করে ফাতেমার লাশ ইউনুসের দেখানো মতে উপস্থিত স্বাক্ষীদের মোকাবেলায় ইউনুছের পুরাতন বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়।দীর্ঘ ৪ মাস পর উদঘাটন করা হয় একটি লোমহর্ষক হত্যাকান্ডের।
অভিযানকালে ফাতেমার ব্যবহৃত মোবাইল, সিম, জাতীয় পরিচয়পত্র, গলার হার, কানের দুল, হাত ব্যাগ ও ওড়না গোপালদী বাজার গাজীপুরা ব্রীজ থেকে হাড়িদোয়া নদীতে ফেলে দেয় বলে ইউনুছ জানায়, উল্লেখিত স্থানে অভিযান করে উক্ত মালামার উদ্ধারের চেস্টা করা হলেও তা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 Telegraphnews24.com
Theme Dwonload From telegraphnews24.Com